পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান-দাওয়াত পাবে বিশ্বব্যাংক, খালেদা জিয়া : ওবায়দুল কাদের

স্টাফ রিপোর্টার ॥ পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে দাওয়াত দেওয়া হবে বিশ্বব্যাংককে। সংস্থাটির কান্ট্রি ডিরেক্টরকে আমন্ত্রন জানানো হবে। সাথে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকেও আমন্ত্রণ জানানো হবে বলে জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

পদ্মা সেতুর উদ্বোধনে আসতে বিএনপিকে কার্ড দেয়া হবে। তবে সাজাপ্রাপ্ত বেগম খালেদা জিয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়ার আগে আইনকানুন যাচাই করা হবে। ব্র্যাকের উদ্যোগে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত নারী চালকদের সনদপত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে এসে শনিবার সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘আমরা তো কাউকে দাওয়াত দেব না, এটা বলিনি। এখন বেগম খালেদা জিয়া তো…এটা নিয়মের মধ্যে পড়লে অবশ্যই দেব। তারপরও বিএনপির চেয়ারপার্সন। নিয়মকানুন জেনে আমরা দেব। বিএনপির নেতারা পাবেন। তাদেরকে আমরা দেব। তাদের অন্যান্য শরিক দল…বাম-ডান, সবাই পাবেন। কার্ড আমরা দেব। এটা জাতীয় সম্মানের প্রতীক।’

বিএনপির নেতাদেরও আমন্ত্রন জানানো হবে। ওবায়দুল কাদের এদিন আরও বলেন, ‘ফখরুল এবং বিএনপির কিছু নেতা আবোল-তাবোল বকছেন। তাদের আসলে মাথা খারাপ হয়ে গেছে। তারা পদ্মা সেতুকে সহ্য করতে পারছে না। তারা মেট্রোরেলকে সহ্য করতে পারছে না। এগুলো তারা জীবনে দেখেওনি। করেওনি। শেখ হাসিনা করছেন, এ জন্য তাদের ক্ষোভ। এ জন্য তাদের বুকে বিষ ব্যথা। ব্যথার জ্বালায় জ্বলছে। আমরা তাদেরকে দাওয়াত দিচ্ছি, দিস ইজ ভেরি ইমপরট্যান্ট।’

অনুষ্ঠানে নির্বাচন ও বিএনপি প্রসঙ্গে কথা বলতে গিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিএনপি একটা বড় দল, তারা নির্বাচনে আসুক আমরা চাই। ক্ষমতার পরিবর্তন চাইলে নির্বাচনে অংশ নিতে হবে। এখন নির্বাচনে অংশ না নিয়ে যদি মনে করেন হত্যা-সন্ত্রাসের পথে থাকবেন, যদি মনে করেন শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকি দিয়ে ষড়যন্ত্রের চোরাগলি দিয়ে আপনারা ক্ষমতার মসনদে বসবেন, তাহলে এই রঙিন খোয়াব দুঃস্বপ্নে পরিণত হবে।’

ব্র্যাকের উদ্যোগে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত নারী চালকদের সনদপত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ব্র্যাকের নির্বাহী পরিচালক আসিফ সালেহ। এ ছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন ব্র্যাকের প্রশাসন এবং সড়ক নিরাপত্তা কর্মসূচির পরিচালক আহমেদ নাজমুল হুসেইন, ব্র্যাক জেন্ডার কর্মসূচির পরিচালক নবনীতা চৌধুরী, বিশ্বব্যাংক ঢাকার কান্ট্রি ডিরেক্টর মারসি মিয়াং টেমবন, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব কে এম আলী আজম, বিআরটিএ চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ মজুমদার, বিআরটিসির চেয়ারম্যান মো. তাজুল ইসলাম, নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চন প্রমুখ।

 

আলোচিত
সমকালীন প্রসঙ্গ
Edit Template

সম্পাদক ও প্রকাশক : সুভাষ সিংহ রায়
নির্বাহী সম্পাদক : হামিদ মোহাম্মদ জসিম

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয় :

১২৮/৪, পূর্ব তেঁজতুরি বাজার, তৃতীয় তলা, কারওয়ান বাজার, ঢাকা- ১২১৫
ফোন : পিএবিএক্স- +৮৮-০২-৫৫০১২৬৪০-১
ফ্যাক্স : + ৮৮ ০২ ৪৮১২০৮৫৩
ই-মেইল : banglabichitra17@gmail.com

যুক্ত থাকুন

© সাপ্তাহিক বাংলা বিচিত্রা কর্তৃক সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত ২০২২

 ওয়েবসাইট নির্মান ও ব্যবস্থাপনায়ঃ Contriver IT